মঙ্গলবার , ৯ জুলাই ২০২৪ | ২৮শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিরলে পান চাষে সফল ওমান ফেরত হাবিবুর রহমান

প্রতিবেদক
ঠাকুরাগাঁও সংবাদ
জুলাই ৯, ২০২৪ ৯:৩৯ অপরাহ্ণ

বিরল (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ঃ গাছের পাতা টাকা কেন হয় না। গানের এই কথাটির উত্তর দিয়ে মিথ্যা প্রমাণ করেছে ওমান ফেরত এক যুবক। ওই যুবক প্রতিনিয়িত গাছের পাতা বাজারে নিয়ে গিয়ে সংসার চালিয়েও অবশিষ্ঠ অর্থ জমা করে আসছে। বলছিলাম, দিনাজপুরের বিরল উপজেলার ১ নং আজিমপুর ইউপি’র শ্যামপুর গ্রামের ইউসুফ আলীর পুত্র ওমান ফেরত যুবক হাবিবুর রহমান (২৬)-এর কথা।
বিদেশে কষ্টের জীবন সহ্য করতে না পেরে সে গত ২০১৮ সালে প্রথমের দিকে দেশে ফিরে রাজশাহীর পুটিয়ায় এক আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে যায়। সেখানে গিয়ে দেখে, সেখানকার মানুষ পানের চাষ করে অনেক স্বাবলম্বী ও লাভবান হয়েছে। এরপর উদ্যোগ নিয়ে সেখান থেকে পানের চারা এবং শ্রমিক নিয়ে এসে বাড়ির পাশে প্রাথমিক ভাবে ১৮ শতাংশ জমিতে সে পানের চারা রোপন করে পান চাষ শুরু করে। সেখানেই ঘুরে যায় তার ভাগ্যের চাকা। এর পর তাকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। দিন দিন স্বাবলম্বী হতে থাকে সে। ২০২২ সালে জমির পরিমান বাড়িয়ে ২৫ শতাংশ এবং বর্তমানে ৩৫ শতাংশ জমিতে সে পানের আবাদ করে এলাকায় ব্যপক সাড়া ফেলেছে।
যুবক হাবিবুর রহমান জানায়, আমি ওমান দেশে ছিলাম। সেখানে খুবই কষ্ট। আমি সেখান থেকে দেশে ফিরে রাজশাহীর পুটিয়ায় এক আত্মীয়-এর বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে এই পান চাষে উদ্বুদ্ধ হই। প্রথমে এই পানের আবাদ করতে আমার খুবই কষ্ট হয়েছে। কারণ পান গাছের পরিচর্যা ও পান পাতা ছেঁড়ার জন্য রাজশাহী ও ফরিদপুর থেকে দক্ষ্য শ্রমিক নিয়ে আসতে হত। দুরবর্ত্তী হবার কারণে শ্রমিকরাও আমার কাছ থেকে বেশি বেশি টাকা নিত। কষ্ট হলেও আমি হাল ছাড়িনি। এখন আমিসহ আমার পরিবারের ৭ জন মানুষ সবাই এই কাজটি শিখে ফেলেছি। আমাদের পাশাপাশি স্থানীয় অনেকে এই কাজটি এখন জানে। সে জানায়, পরিচর্যা করতে পারলে পান চাষে ধান এবং আলুর চেয়ে প্রায় দ্বিগুন লাভ। পান চাষের জন্য প্রথম থেকেই বিরল উপজেলা কৃষি অফিস ব্যপক সহযোগিতা ও পরামর্শ দিয়ে এসেছে। আমার পানের বরজে বর্তমানে প্রতিদিন গড়ে ৫ থেকে ৬ জন স্থানীয় শ্রমিক কাজ করে। গানে বলে গাছের পাতা টাকা কেন হয়না। আমি মনে করি পান গাছের প্রতিটি পাতাই হচ্ছে টাকা। আমি অনেক সময় এই পান পাতা বাজারে নিয়ে গিয়ে সে পান পাতা দিয়ে বাজার করে নিয়ে আসি।
এব্যপারে বিরল উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মোস্তফা হাসান ইমাম জানান, ওমান ফেরত যুবক হাবিবুর রহমান বিরলে প্রথম পান চাষ করে সফল হয়েছে এবং এলাকায় ব্যপক সাড়া ফেলেছে। তার পানের বরজ দেখার জন্য প্রতিনিয়ত অনেক মানুষ আসে। আমরা তাকে সব ধরণের সহযোগিতা ও পরামর্শ দিয়ে আসছি। সে প্রমান করে দিয়েছে, বিরলের মাটি শুধু ধান, লিচু, আম, গম, ভুট্টা বা শাক সবজির জন্য উর্বর নয়। পান চাষের জন্যও উর্বর ও উপযোগি এবং পান চাষে ব্যপক লাভ।

সর্বশেষ - ঠাকুরগাঁও

আপনার জন্য নির্বাচিত

সীমান্ত হত্যা বাংলাদেশ-ভারত উভয় দেশের জন্য দুঃখজনক -ভারতীয় হাইকমিশনার

বোচাগঞ্জে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষে পুরস্কার বিতরণ

উত্তর বঙ্গের প্রথম থ্রি ডি স্পীড ব্রেকার বীরগঞ্জে

জেলখানার দরজা খুলে দিল তালেবান : কাবুল জুড়ে উড়ছে ক্ষমতার নতুন পতাকা

ঠাকুরগাঁওয়ে জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন ও কৃষি ভূমি সংস্কার বিষয়ক সমাবেশ অনুষ্ঠিত

হাবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির নেতৃত্বে মোস্তাফিজার-সাদেকুর

ঠাকুরগাঁওয়ে মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচারবিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস পালিত

পীরগঞ্জ উপজেলার এইচ,কে উচ্চ বিদ্যালয়ে শেখ রাসেলের জন্মবার্ষিকী উদযাপন

বোচাগঞ্জে দরিদ্রদের মাঝে মশারী বিতরণ

বীরগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত সাইকেল আরোহী আলম হোসেন পরিবারের মাঝে খাদ্রসামগ্রী বিতরণ